কোটালীপাড়ায় মৎস্য ঘেরে বিষ : ২০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় কাকডাঙ্গা গ্রামের একটি মৎস্য ঘেরে বিষ দিয়ে মাছ নিধন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে ওই মৎস্য ঘের মালিকের প্রায় ২০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। গতকাল সোমবার (০৫ ডিসেম্বর) গভির রাতে দুর্বৃত্তরা মাসের ঘেরে বিষ প্রয়োগ করে বলে অভিযোগ করেন মৎস্য ঘেরের ম্যানেজার মোঃ আনোয়ার হোসেন। এ ব্যাপারে মৎস্য ঘের মালিক আজিজুল হালদারের মা কোহিনুর বেগম বাদী হয়ে কোটালীপাড়ার থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে। মৎস্য ঘেরের ম্যানেজার মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, এই মৎস্য ঘেরে দুইজন কর্মচারি রাতে থাকে। রাত ১টার দিকে ৩ জন দুর্বৃত্ত ঘেরে আসে। তিনজনকে আমাদের কর্মচারীরা দেখতে পায় এবং তারা পানির মধ্যে বিষ জাতীয় কিছু একটা ফেলতে দেখে। পরে কর্মচারীরা নিষেধ করলে তাদেরকেও হুমকি দিয়ে চলে যায়। ওই মৎস্য ঘেরের কর্মচারী জুনায়েদ বলেন, ঘেরের উত্তর পাশ দিয়ে কাঠিখা গ্রামের জলিল হাওলাদারের ছেলে কালু হাওলাদারসহ তিনজন লোক ঘেরে মধ্যে ঢুকে।ঘেরের বাহিরে আরও ৫-৬ জন লোক দাড়িয়ে ছিল। পরে পানির মধ্যে কিছু একটা ফেলতে দেখি। আমি কি ফেলছে প্রশ্ন করলে আমাকে হুমকি ধামকি দিয়ে চলে যায়।সকালে দেখি মাছ সব মরে ভেষে উঠছে। মেরিস ফিসারিজ অফিসার রায়হান চৌধুরী মৎস্য ঘেরে পরিদশনে গিয়ে বলেন, এখানে এসে যেটা মনে হচ্ছে খুবই দঃখজনক ও মর্মান্তিক ঘটনা। মাছে কোন রোগ ব্যাধি কোন কিছু নেই। ধরনা করা যায় পরিকল্পিত কোন বিষ চক্রক্রিয়ায় অন্তগত। মাছের তো ফরেনসিক রিপট না করে সেভাবে কিছু বলা যায় না। যতটুকু মনে হচ্ছে মৎস্য নিধন করার জন্য বিষ জাতীয় কিছু ব্যাবহার করা হয়েছে। কোটালিপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিল্লুর রহমান বলেন, এ ব্যাপারে আমরা একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

মন্তব্যসমূহ (০)


ব্রেকিং নিউজ

লগইন করুন


Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন