সিরিয়ায় ইরানের কনস্যুলেটে ইসরায়েলি বিমান হামলা, নিহত ৭

সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কে ইরানের কনস্যুলেট ভবনে ইসরায়েলি হামলায় সাত কর্মকর্তা নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে ইরানের বিপ্লবী গার্ডস। নিহতদের মধ্যে অভিজাত কুদস ফোর্সের সিনিয়র কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ রেজা জাহেদি এবং তার ডেপুটি ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ হাদি হাজি-রহিমি নিহতদের মধ্যে রয়েছেন। ইরান ও সিরিয়ার সরকার এ হামলার নিন্দা জানিয়েছে।  

এ বিষয়ে বিবিসি ইসরায়েলি সামরিক বাহিনীর কাছে জানতে চাইলে তারা বিদেশি সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে মন্তব্য করে না বলে জানায়।

ইসরায়েল গত কয়েক বছরে সিরিয়ায় ইরান সমর্থিত লক্ষ্যবস্তুতে শত শত হামলা চালিয়েছে, কিন্তু খুব কমই হামলার কথা স্বীকার করেছে। লক্ষ্যবস্তুগুলো ইরান সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর। গত বছরের অক্টোবরে গাজায় যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে হিজবুল্লাহ এবং লেবানন ও সিরিয়ায় ইরান-সমর্থিত অন্যান্য গোষ্ঠী তাদের হামলা বাড়িয়ে দেয়, এর পরেই ইসরায়েলি বাহিনীও ব্যাপক হামলা শুরু করেছে। 

 

এদিকে সিরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, স্থানীয় সময় প্রায় ভোর ৫টায় ইসরায়েলের বিমান অধিকৃত গোলান মালভূমি থেকে কনস্যুলেট ভবনের দিকে হামলা চালায়।

সিরিয়ার বিমান প্রতিরক্ষা বাহিনী ইসরায়েলের ছোড়া কিছু ক্ষেপণাস্ত্র গুলি করে ভূপাতিত করেছে। কিন্তু অন্য আরো কিছু ক্ষেপণাস্ত্র কনস্যুলেটে আঘাত হেনে গোটা ভবনই ধসিয়ে দেয় এবং এতে ভেতরে থাকা প্রত্যেকেই হতাহত হয়েছে। আহত-নিহতদের পরিচয় সম্পর্কে কোনো তথ্য না দিয়ে মন্ত্রণালয় জানায়, মৃতদেহ উদ্ধার এবং ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে আহতদের উদ্ধারের কাজ চলছে।

 

ইরানের রাষ্ট্রীয় টিভি জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জাহেদিও রয়েছেন।

 তিনি রেভল্যুশনারি গার্ডের বিদেশি অপারেশন শাখা কুদস ফোর্সের সিনিয়র কমান্ডার। এ ছাড়া নিহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজন কূটনীতিকও রয়েছেন। ইরানের আধা-সরকারি তাসনিম সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে, ৬৩ বছর বয়সী জাহেদি ২০০৮ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত কুদস ফোর্সে সক্রিয় ছিলেন এবং সিরিয়া ও লেবাননে বিপ্লবী গার্ডের কমান্ডার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

 

যুক্তরাজ্যভিত্তিক সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানিয়েছে, এ ঘটনায় আটজন নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে কুদস ফোর্সের একজন উচ্চপদস্থ নেতা, দুই ইরানি উপদেষ্টা এবং বিপ্লবী গার্ডের পাঁচ সদস্য রয়েছেন।

 

 

ঘটনাস্থলের কিছু ছবি ও ভিডিওতে দেখা গেছে, ধসে পড়া বহুতল ভবনের অবশিষ্টাংশ থেকে ধোঁয়া উড়ছে। পাশেই অবস্থিত ইরানি দূতাবাসের উল্লেখযোগ্য তেমন ক্ষতি হয়নি বলে ধারণা করা হচ্ছে। ইরানের রাষ্ট্রদূত হোসেইন আকবরী বলেছেন, ‘ইসরায়েলি এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান নিষ্ঠুরভাবে আমার বাসস্থান, দূতাবাসের কনস্যুলার বিভাগ এবং ইরানের সামরিক সদস্যদের লক্ষ্যবস্তু করেছে।’ ইরানের রাষ্ট্রীয় টিভিকে তিনি বলেছেন, ‘কয়েকজন কূটনীতিকসহ পাঁচ থেকে সাতজন নিহত হয়েছেন।’

জিবিডেস্ক //

মন্তব্যসমূহ (০)


ব্রেকিং নিউজ

লগইন করুন


Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন